(বিজ্ঞান) ৬ষ্ঠ: গতির খেলা – সমাধান

গতির খেলা হচ্ছে ৬ষ্ঠ শ্রেণীর বিজ্ঞান বই এর ৩য় শিখন অভিজ্ঞতা। গতির খেলা অধ্যায়টির পাঠ্যবইয়ের প্রশ্নের উত্তর সম্পর্কে আলোচনা করা হলো-

গতির খেলা

প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় সেশন
প্রয়োজনীয় সামগ্রী: কাগজ/ খাতা, কলম, পেন্সিল, অনুশীলন বই, চুন, গজ ফিতা, দড়িলাফের দড়ি, টেনিস বল, স্টপ ওয়াচ বা ঘড়ি, ক্যারাম বোর্ড, গুটি ও বোরিক পাউডার।

ধাপ-১
কাজের ধারা

  • শিক্ষকের সহায়তায় বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে অথবা খোলা জায়গাতে একটু সমতল জায়গা খুঁজে নিই।
  • ক্লাসের সবাই ৪ জন করে চারটি দল গঠন করি।
  • দলের কোন সদস্য কোন খেলায় অংশগ্রহণ করবে তা ছকে লিখি।

নমুনা ছক

CamScanner 01 08 2024 14.03 1

ধাপ-২
কাজের ধারা:

  • খেলাগুলোর ধারাবাহিকতা কীভাবে হবে, খেলার নিয়ম ইত্যাদি নিয়ে সবার সাথে আলোচনা করি।
  • খেলার জায়গাটি গুছিয়ে খেলার উপযোগী করতে যা প্রয়োজন, যেমন- মাঠ পরিষ্কার করা, সমতল করণ, খেলার জন্য চুন দিয়ে দাগ দেওয়া ইত্যাদি ক্লাসের সবাই মিলে হাত লাগিয়ে করে ফেলি।
  • এবার খেলার উপকরণ হিসেবে চুন বা মাঠে দাগ দেওয়া যায় এমন কিছু, গজ ফিতা, দড়িলাফের দড়ি, টেনিস বল, স্টপ ওয়াচ, ক্যারাম বোর্ড, গুটি, বোরিক পাউডার ইত্যাদি যোগাড় করি।
  • চারটি খেলা পরিচালনার জন্য কোন দল কোন খেলায় আয়োজক হিসেবে থাকবে তা লটারির মাধ্যমে ঠিক করে হুকে লিখি।

নমুনা ছক

CamScanner 01 08 2024 14.40

ধাপ-৩
কাজের ধারা

  • প্রথমেই দৌড় প্রতিযোগিতার আয়োজন করি।
  • শিক্ষকের সাহায্য নিয়ে যেখানে দৌড় প্রতিযোগিতা হবে সেখানে ১০০ মিটার (পুরো ১০০ মিটার লম্বা জায়গা না পেলে সর্বোচ্চ যতটা লম্বা পাওয়া যায়) মেপে নিয়ে দাগ দিয়ে নিই।
  • প্রত্যেক দলের দৌড় প্রতিযোগিতার জন্য নির্বাচিত সদস্য দৌড় শুরুর লাইনে এসে দাঁড়াবে।
  • শিক্ষক বাঁশিতে ফুঁ দিলে দৌড় শুরু করবে।
  • শিক্ষক স্টপওয়াচ ব্যবহার করে কোনো প্রতিযোগীর ১০০ মিটার (কিংবা যে দূরত্ব ঠিক করা হয়েছে), অতিক্রম করতে কতক্ষণ সময় লেগেছে তা লক্ষ করবেন, এই খেলার আয়োজনের দায়িত্বে যেসব দল থাকবে তারাও ঘড়ি/স্টপওয়াচ ব্যবহার করে সময় নোট করবে।
    শিক্ষকের পর্যবেক্ষণের সঙ্গে মিলিয়ে নিয়ে নিচের ছকে নোট নেবে।

নমুনা ছক

CamScanner 01 08 2024 14.03 2

ধাপ-৪

কাজের ধারা

  • এবার দড়িলাফ খেলার আয়োজন করি।

দড়ি লাফের নিয়মাবলী
⇒ এই খেলায় অংশগ্রহণকারীরা গোল হয়ে দাঁড়াবে।
⇒ শিক্ষক বাঁশিতে ফুঁ দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে খেলা শুরু করবে। দড়িটাকে মাথার ওপর দিয়ে ঘুরিয়ে পায়ের পাতার নিচ দিয়ে গলিয়ে এনে বারবার যে সবচেয়ে বেশি সময় ঘুরাতে পারবে সেই বিজয়ী।
⇒ প্রতিটি দল দড়ি লাফ খেলা দলের প্রতিটি সদস্য কর্তটি পাক দিয়েছে অর্থাৎ পায়ে পায়ে না লাগিয়ে কতটি পাক দিলো গুনে রাখি এবং কত সময় ধরে খেললো স্টপওয়াচ দিয়ে হিসাব করি এবং পরবর্তীতে শিক্ষকের কাছ থেকে সময়গুলো মিলিয়ে নিই।
⇒ নিজ দলের প্রতিযোগী দড়িলাফে পায়ের সঙ্গে প্যাচ না লাগিয়ে কতক্ষণ খেলতে পেরেছে ছকে লিখি।

নমুনা ছক

CamScanner 01 08 2024 14.03 3

ধাপ-৫
কাজের ধারা

  • ভার নিক্ষেপ খেলার আয়োজন করি।

খেলার নিয়মাবলী
⇒ কাপড়ের ব্যাগে ভার নিক্ষেপের বলটাকে ভরে সেটার মুখ দড়ি দিয়ে বেঁধে নিই। দড়িটা এমনভাবে কেটে নেব যাতে ধরার জন্য অন্তত ১-২ ফুট অতিরিক্ত দড়ি থাকে। এই দড়িটা ধরেই ঘুরিয়ে সেটিকে সামনের দিকে ছুঁড়ে মারতে হবে।
⇨ যে ভার নিক্ষেপ করবে সে দড়িটাকে ধরে ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে এসে শুরুর লাইনে পা রেখে যতটা সম্ভব দূরে ছুঁড়ে মারার চেষ্টা করবে। যার বল যতদূরে গিয়ে থামবে সেই বিজয়ী।
⇒ ভার নিক্ষেপের জন্য দলের প্রতিযোগীর ছোঁড়া বলটা কতদূর গিয়ে থামল তা ছকে লেখি।

ধাপ-৬
ছুঁড়ে দেওয়া ভারটির গতিপথ পর্যবেক্ষণ করে ছবি আঁকি।

নমুনা ছক

CamScanner 01 08 2024 14.03 4

কাজের ধারা

  • ছুঁড়ে দেওয়া ভারটির গতিপথ পর্যবেক্ষণ করি এবং গতিপথের ছবি আঁকি।

নমুনা ছবি
ভার নিক্ষেপের সময় নিজ দলের প্রতিযোগী তানভীরের ছুঁড়ে দেয়া ভার উপরে উঠে একটি অর্ধবৃত্তাকার পথ অতিক্রম করে আবার নিচে নেমে এসেছিল।

CamScanner 01 08 2024 14.03 5

ধাপ-৭
নিক্ষিপ্ত ভার বাঁকা হয়ে পড়ার যা কারণ হতে পারে-

কাজের ধারা

  • নিক্ষিপ্ত ভারটি সোজা সামনের দিকে গিয়ে বাঁকা হয়ে পড়লো কেন তার কারণ কী হতে পারে লিখি।

নমুনা উত্তর
কোনো বস্তুর ওপর অভিকর্ষজ বল সব সময় নিচের দিকে ক্রিয়া করে। উপরে বলটি ছোঁড়ার পর যতই সামনের দিকে যায় ততই অভিকর্ষজ বলের কারণে প্রতি মুহূর্তে নিচে নেমে যায় এবং সবশেষে মাটিতে পতিত হয়।

ধাপ-৮
কাজের ধারা

  • ক্যারাম খেলার আয়োজন করি এবং কোথায় ক্যারাম খেলবো ঠিক করি।

খেলার নিয়মাবলী
⇨ ক্যারামের গুটি ফেলার পয়েন্টের উপর হার-জিত নির্ভর করবে। একটি সাদা গুটি পকেটে ফেলার জন্য দশ পয়েন্ট; একটি কালো গুটির জন্য পাঁচ এবং লাল গুটির জন্য ২০ পয়েন্ট। তবে লাল গুটি কেউ যে দানে ফেলবে ঠিক তার পরের দানেই অন্য একটি গুটিকে পকেটে ফেলতে হবে। তাছাড়া লাল গুটির পয়েন্ট যোগ হবে না, গুটিটিকে আবার মাঝখানে রাখতে হবে।
⇨ যে দলের সদস্যরা ক্যারাম খেলবে সেই দল বাদে বাকি দলের সবাই খেলার দিকে লক্ষ রাখি এবং যে দল পরিচালনা করবে সেই দল প্রত্যেকের স্কোরের হিসাব রাখি।

⇒ গুটিগুলো কীভাবে একটার সঙ্গে অন্যটা টোকা লেগে এদিক-সেদিক ছুটছে লক্ষ রাখি।
⇒ পথিমধ্যে অন্য গুটির সঙ্গে যদি ধাক্কা না লাগে তাহলে একটি নির্দিষ্ট গুটির গতিপথ কি নির্দিষ্ট দিকেই থাকে নাকি পরিবর্তন হয় লক্ষ রাখি।
⇒ এক গুটির সাথে অন্য গুটির ধাক্কা লাগার পরে গুটির দিক কীভাবে ও কোন দিকে পরিবর্তিত হচ্ছে লক্ষ রাখি।
⇒ দলের প্রতিযোগীর ক্যারাম খেলার স্কোর ছকে লেখি।

নমুনা ছক

CamScanner 01 08 2024 14.03 6

ধাপ-৯
ক্যারামের গুঁটির গতিপথের কীরূপ পরিবর্তন হচ্ছে তা লেখো।

কাজের ধারা:

  • ক্যারামের গুটির সঙ্গে স্ট্রাইকের ধাক্কা লাগার পর স্ট্রাইক ও গুটির গতিপথের কীরূপ পরিবর্তন হচ্ছে ভেবে লিখি ও ছবি আঁকি।

নমুনা ছবি

ক্যারামের গুটির সাথে স্ট্রাইকের ধাক্কা লাগার পর স্ট্রাইকের গতিপথ পরিবর্তিত হচ্ছে। স্ট্রাইক এবং ধাক্কা লাগা গুটি দুটিই দিক পরিবর্তন করে ভিন্ন দিকে ছুটে যাচ্ছে। স্ট্রাইক, গুটিকে যে দিক থেকে ধাক্কা দিচ্ছে গুটির ওপর ঐ দিকে একটি বল ক্রিয়াশীল হচ্ছে তাই গুটিটি স্থির অবস্থা হতে সেই দিকে চলে যাচ্ছে, আর স্ট্রাইকও স্থির গুটিতে ধাক্কা দেয়ার পর তার দিক পরিবর্তন হয় এবং গতির মানেরও পরিবর্তন হয়। যেহেতু ধাক্কা লাগার পরে দুটি বস্তুই একে অপরের উপর বল প্রয়োগ করে। তাই যে গুটিতে ধাক্কা লাগবে না তা স্থিরই থাকবে। কারণ এগুলোর উপর কোনো বল প্রয়োগ হয় নি।

CamScanner 01 08 2024 14.03 7

চিত্র: ধাক্কা লাগার পরে স্ট্রাইক ও গুটির গতিপথ পরিবর্তন

ধাপ-১০
ক্যারাম বোর্ডে কী কারণে বোরিক পাউডার দেওয়া হয় এবং না দিলে কী হয় লিখি।

নমুনা উত্তর
বোরিক পাউডার দিয়ে গুটির সাথে বোর্ডের ঘর্ষণ বলকে কমানো হয়। এতে করে গুটি খুব সহজে বোর্ডের মধ্যে চলাচল করতে পারে। পাউডার না দিলে বোর্ডের মেঝে খসখসে থাকবে। যার ফলে গুটিগুলো বোর্ডের মধ্যে চলাচলে ঘর্ষণ বলের বাধা খুব বেশি অনুভব করবে এবং এদের গতি কমে যাবে। তাই গুটির উপর ঘর্ষণ বলের প্রভাব কমানোর জন্য বোরিক পাউডার ব্যবহার করা হয়।

ধাপ-১১
বাড়ির কাজ-

কাজের ধারা

  • খেলার সাথে পাঠ্যবই এ উল্লিখিত বিভিন্ন গতির মিলগুলো চিহ্নিত করি এবং নির্দিষ্ট ঘরে টিক দেই।

নমুনা উত্তর

CamScanner 01 08 2024 14.03 8

প্রাসঙ্গিক প্রশ্ন ও নমুনা উত্তর

প্রশ্ন-১. দৌড় এবং ভার নিক্ষেপ খেলার মধ্যে পার্থক্য কী ছিল?
উত্তর: দৌড় প্রতিযোগিতা সরল গতিতে হয় কিন্তু ভার নিক্ষেপে ভারটি বক্রগতিতে মাটিতে পতিত হয়।

প্রশ্ন-২. দড়ি লাফে কোন কোন গতি দেখা যায়?
উত্তর: দড়ি লাফে একই সাথে ঘূর্ণন গতি ও পর্যাবৃত্ত গতি দেখা যায়।

প্রশ্ন-৩. ক্যারাম খেলায় বোের্ড সমান জায়গায় না বসালে কী হবে?
উত্তর: বোর্ড সমান জায়গায় না থেকে কোনো দিকে ঢালু থাকলে গুটিগুলো ঢালু পথে গতিশীল হবে ফলে কাঙ্খিত পকেটে গুটি ফেলা যাবে না।

প্রশ্ন-৪. গুটির গতি বাড়ে আবার কমে স্থির হয়। এই পরিবর্তনটি কী নির্দেশ করে?
উত্তর: গতির পরিবর্তন হলো ত্বরণ। গুটি শূন্য থেকে বেগ প্রাপ্ত হওয়া মানে তার মধ্যে ত্বরণ সৃষ্টি হওয়া। আর নির্দিষ্ট বেগ থেকে স্থির হওয়া মানে মন্দন হওয়া।

প্রশ্ন-৫. নিক্ষিপ্ত ভার বাঁকা হয়ে পড়ে কেন?
উত্তর: নিক্ষিপ্ত ভার অভিকর্ষজ বলের প্রভাবে বাঁকা হয়ে পড়ে।

প্রশ্ন-৬. ধাপ ৫ এ যে ভার নিক্ষেপ খেলাটি হলো এক্ষেত্রে ভার নিক্ষেপের সময় বলসহ ব্যাগটার দড়ি ধরে থাকা অবস্থায় কী অনুভব হবে?
উত্তর: ভার নিক্ষেপের সময় বলসহ ব্যাগটার দড়ি টেনে ধরে থাকা অবস্থায় দড়ির উল্টো দিকে অর্থাৎ বাইরের দিকে একটি টান অনুভূত হয় এবং বলসহ ব্যাগ সামনের দিকে ছুটে যেতে চায়।

চতুর্থ ও পঞ্চম সেশন
প্রয়োজনীয় সামগ্রী: কাগজ, কলম, পাঠ্যবই, সহায়ক বই।

ধাপ-১
কাজের ধারা

  • বিভিন্ন ধরনের গতি কোন কোন ক্ষেত্রে দেখা যায় তা বন্ধুদের সাথে আলোচনা করে ছকে লেখি।

নমুনা উত্তর

CamScanner 01 08 2024 14.03 9

ধাপ-২
কাজের ধারা

  • দৌড় প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকৃত দলের সদস্যের বেগ নির্ণয় করি (ছক: ৩ হতে)

নমুনা উত্তর

CamScanner 01 08 2024 14.03 10

ধাপ-৩

  • বলটি বেশি উচ্চতা থেকে পড়লে কি বেশি জোরে পড়বে? উত্তরের স্বপক্ষে যুক্তি দাও।

কাজের ধারা

  • বিজ্ঞান বই থেকে শক্তির অংশটুকু পড়ে দলগতভাবে আলোচনা করি।
  • একটি বল উপর থেকে নিচে ফেলে দিলে কত জোরে নিচে নামে এবং উচ্চতার সাথে তার গতির সম্পর্ক কী তা আলোচনা করে খাতায় লিখি।

নমুনা উত্তর
একটি বলকে উপর থেকে নিচে ফেলার সময় গতি নির্ভর করবে তার উচ্চতার উপর। যত উপর থেকে বলটিকে ফেলব তত জোরে সে মাটিতে পড়বে। কারণ বলটি যখন উপরে থাকে তার মধ্যে স্থিতিশক্তি জমা থাকে। নিচে পড়ার সময় তার স্থিতিশক্তি গতিশক্তিতে রূপান্তর হয়। বলটি যত উপরে থাকবে তাতে তত বেশি স্থিতিশক্তি সঞ্চিত থাকবে। তাই নিচে পড়ার সময় গতিশক্তিও বেশি হবে। আর যত বেশি গতিশক্তি তত বেশি তার গতি। তাই বলটি যত উপর হতে ফেলা হবে তত জোরে পড়বে।

আরো পড়োআকাশ কত বড়?
আরো পড়োআমাদের জীবনে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

ধাপ-৪
বিজয়ী দলের জন্য পুরস্কার তৈরি করি এবং নম্বরের ভিত্তিতে বিজয়ী দল ঘোষণা করি।

প্রাসঙ্গিক প্রশ্ন ও নমুনা উত্তর

প্রশ্ন-১. স্থিতিশক্তি কীসের ওপর নির্ভর করে?
উত্তর: স্থিতিশক্তি উচ্চতার ওপর নির্ভর করে।

প্রশ্ন-২. ক্যারামের গুটি গতিপ্রাপ্ত হয়েও থেমে যায় কেন?
উত্তর: গুটির সাথে বোর্ডের ঘর্ষণ বলের কারণে গুটি গতিপ্রাপ্ত হয়েও থেমে যায়।

প্রশ্ন-৩. গতিশক্তি কার উপর নির্ভর করে?
উত্তর: বস্তুর ভর ও গতির উপরেই তার গতিশক্তি নির্ভর করে।

প্রশ্ন-৪. অতিক্রান্ত দূরত্ব সমান হলেও যদি ১ম জনের থেকে ২য় জনের প্রয়োজনীয় সময় বেশি হয় তাহলে কার বেগ বেশি?
উত্তর: ১ম জনের বেগ ২য় জনের থেকে বেশি হবে।

প্রশ্ন-৫. গতি বাড়তে থাকলে বা কমতে থাকলে বিজ্ঞানের ভাষায় তাকে কী বলে?
উত্তর: গতি বাড়তে থাকলে বা কমতে থাকলে বিজ্ঞানের ভাষায় একে ত্বরণ বা মন্দন বলে। যদি গতির পরিবর্তন ধনাত্মক হয় তাহলে ত্বরণ, যদি ঋণাত্মক হয় তবে মন্দন।

প্রশ্ন-৬. দৌড় শেষ করার সাথে সাথে থামা যায় না কেন?
উত্তর: একটি নির্দিষ্ট বেগ অর্জন করার পর হঠাৎ বেগ শূন্য করা সহজ নয়। তাই ধীরে ধীরে বেগ কমিয়ে শূন্য করতে হয়।

Leave a Comment