(বাংলা) ৬ষ্ঠ: সাহিত্য পড়ি লিখতে শিখি (৬ষ্ঠ পরিচ্ছেদ: সাহিত্যের নানা রূপ) – সমাধান

সাহিত্য পড়ি লিখতে শিখি হচ্ছে ষষ্ঠ শ্রেণীর বাংলা বই এর ৬ষ্ঠ অধ্যায়। সাহিত্য পড়ি লিখতে শিখি অধ্যায়ের ষষ্ঠ পরিচ্ছেদ: সাহিত্যের নানা রূপ এর অনুশীলনীর প্রশ্নের উত্তর সম্পর্কে আলোচনা করা হলো-

সাহিত্যের নানা রূপ
সাহিত্যের রূপ বলতে সাহিত্যের বিভিন্ন ধরনকে বোঝায়। সাহিত্যের বিভিন্ন রূপের মধ্যে কবিতা, গান, প্রবন্ধ, নাটক ইত্যাদি বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য।

কবিতা : কবিতা হলো ছন্দবদ্ধ রচনা— যা একজন কবির আবেগ-অনুভূতি, উপলব্ধি ও চিন্তার সংক্ষিপ্ত রূপ।

গান : গান হচ্ছে নির্দিষ্ট সুর, তাল ও লয়ে উচ্চারিত ছন্দবদ্ধ রচনা বা সংগীত। গানে পরপর দুই লাইনের শেষে মিল-শব্দ থাকে। লাইনগুলো সুর করে এবং তালে তালে গাওয়া হয়। সুরই হলো গানের প্রাণ। ছন্দবদ্ধ ভাষা বা পদ্যভাষায় গান লেখা হয়।

গল্প : গল্প কথাসাহিত্যের এমন একটি বিশেষ রূপ, যা দৈর্ঘ্যে ছোটো এবং একটি ঘটনাকে কেন্দ্র করে আবর্তিত হয়। গল্প হলো কোনো কাল্পনিক বা বাস্তব ঘটনার বর্ণনা, যা লেখক ভাষায় প্রকাশ করে লিপিবদ্ধ করে। গল্পের কাহিনি নির্দিষ্ট কোনো বিষয় নিয়ে গদ্য-ভাষায় লিখিত হয়। সেই কাহিনিকে প্রকাশ করার জন্য কিছু চরিত্র থাকে। গল্পের চরিত্রগুলো অভিনয় করা যায়। গল্প কয়েকটি অনুচ্ছেদে বিভক্ত থাকে এবং চরিত্রের প্রয়োজনে মাঝে মাঝে সংলাপ থাকে। গল্পের কাহিনি সাধারণত বর্ণনানির্ভর হয়।

প্রবন্ধ : গদ্যভাষায় কোনো বিষয়ের সুবিন্যস্ত আলোচনাকে প্রবন্ধ বলে। অর্থাৎ প্রবন্ধ হলো কোনো বিষয়ে যুক্তিপূর্ণ রচনা। প্রবন্ধে মূলত কোনো বিষয়ের বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করা হয়। লেখকের সুচিন্তিত মতামত অর্থাৎ যে বিষয়ে প্রবন্ধ লেখা হয়, লেখক সেই বিষয়ের আলোচনা-সমালোচনা সুচারুরূপে ব্যক্ত করেন। প্রবন্ধ কতকগুলো অনুচ্ছেদে বিভক্ত থাকে। প্রতিটি অনুচ্ছেদই পরস্পরের সঙ্গে সংগতিপূর্ণ ও সম্পর্কযুক্ত থাকে। প্রবন্ধের বিষয় সম্পর্কে শুরুতে ইঙ্গিত এবং শেষে লেখকের মতামত থাকে।

নাটক : মঞ্চে অভিনেতা-অভিনেত্রীর সাহায্যে মানবজীবনের সুখ-দুঃখ, হাসি-কান্না, আনন্দ-বেদনা যখন সংলাপের মাধ্যমে দর্শকের সামনে উপস্থিত করা হয়, তখন তাকে নাটক বলে। অন্যকথায় রঙ্গমঞ্চে অভিনয়ের উপযোগী করে যে সাহিত্য রচিত হয়, তাকে নাটক বলে। সংলাপকে নাটকের প্রাণ বলা হয়। একটি আদর্শ নাটকে পাঁচটি অঙ্ক থাকে।

সাহিত্যের নানা রূপ

১. নিচের ছকে টিকচিহ্ন দিয়ে সাহিত্যের বিভিন্ন রূপের বৈশিষ্ট্য শনাক্ত করো।
নির্দেশনা :

তোমরা ইতোমধ্যেই সাহিত্যের বিভিন্ন রূপ সম্পর্কে জেনেছ। সাহিত্যের এসব রূপের বৈশিষ্ট্য অনুযায়ী ছকে টিক (√) চিহ্ন দাও।
নমুনা উত্তর :

CamScanner 06 20 2023 13.21 4 1

২. সাহিত্যের নানা রূপ এর সংক্ষিপ্ত পরিচিতি লেখো।
নির্দেশনা :

সাহিত্যের যেসব রূপ ইতোমধ্যে জেনেছ সেগুলো সম্পর্কে সংক্ষেপে লেখো।
নমুনা উত্তর :
কবিতা : কবিতা হলো ছন্দবদ্ধ রচনা— যা একজন কবির আবেগ-অনুভূতি, উপলব্ধি ও চিন্তার সংক্ষিপ্ত রূপ। কবিতায় অন্ত্যমিল থাকে, অর্থাৎ পরপর দুই লাইনের শেষে মিলশব্দ থাকে। কবিতার লাইনগুলো সুর করে এবং হাতে তালি দিয়ে তালে তালে পড়া যায়। লাইনগুলো সাধারণত নির্দিষ্ট দৈর্ঘ্যের এবং পদ্যভাষায় লেখা হয়।

গান : গান হচ্ছে নির্দিষ্ট সুর, তাল ও লয়ে উচ্চারিত ছন্দবদ্ধ রচনা বা সংগীত। গানে পরপর দুই লাইনের শেষে মিল-শব্দ থাকে। লাইনগুলো সুর করে এবং তালে তালে গাওয়া হয়। সুরই হলো গানের প্রাণ। ছন্দবদ্ধ ভাষা বা পদ্যভাষায় গান লেখা হয়।

গল্প : গল্প কথাসাহিত্যের এমন একটি বিশেষ রূপ, যা দৈর্ঘ্যে ছোটো এবং একটি ঘটনাকে কেন্দ্র করে আবর্তিত হয়। গল্প হলো কোনো কাল্পনিক বা বাস্তব ঘটনার বর্ণনা, যা লেখক ভাষায় প্রকাশ করে লিপিবদ্ধ করে। গল্পের কাহিনি নির্দিষ্ট কোনো বিষয় নিয়ে গদ্য-ভাষায় লিখিত হয়। সেই কাহিনিকে প্রকাশ করার জন্য কিছু চরিত্র থাকে। গল্পের চরিত্রগুলো অভিনয় করা যায়। গল্প কয়েকটি অনুচ্ছেদে বিভক্ত থাকে এবং চরিত্রের প্রয়োজনে মাঝে মাঝে সংলাপ থাকে। গল্পের কাহিনি সাধারণত বর্ণনা নির্ভর হয়।

প্রবন্ধ : পদ্যভাষায় কোনো বিষয়ের সুবিন্যস্ত আলোচনাকে প্রবন্ধ বলে। অর্থাৎ প্রবন্ধ হলো কোনো বিষয়ে যুক্তিপূর্ণ রচনা বা নিবন্ধ। প্রবন্ধে মূলত কোনো বিষয়ের বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করা হয়। লেখকের সুচিন্তিত মতামত অর্থাৎ যে বিষয়ে প্রবন্ধ লেখা হয়, লেখক সেই বিষয়ের আলোচনা-সমালোচনা সুচারুরূপে ব্যক্ত করেন। প্রবন্ধ কতকগুলো অনুচ্ছেদে বিভক্ত থাকে। প্রতিটি অনুচ্ছেদই পরস্পরের সঙ্গে সংগতিপূর্ণ ও সম্পর্কযুক্ত থাকে। প্রবন্ধের বিষয় সম্পর্কে শুরুতে ইঙ্গিত এবং শেষে লেখকের মতামত থাকে।

নাটক : অভিনয়ের উপযোগী করে গদ্যভাষার লেখা এবং সংলাপ-নির্ভর রচনাই হলো নাটক। সংলাপ হলো নাটকের প্রাণ। নাটক সাহিত্যের একটি বিশেষ ধরন, যা লেখা হয় অভিনয় করার জন্য। নাটকে সংলাপের পাশাপাশি স্থান, সময় ও পরিবেশের বর্ণনা থাকে। নাট্যকার একটি মূল বিষয়কে কেন্দ্র করে সংলাপের মাধ্যমে কাহিনি এগিয়ে নেন। নাটকে যেই ব্যক্তিগুলোর কাহিনি বর্ণনা করা হয়, তারাই নাটকের চরিত্র। নাটক অনেক রকম হতে পারে। যেমন— ঐতিহাসিক, সামাজিক, পৌরাণিক, রাজনৈতিক, রোমান্টিক, প্রহসনমূলক ইত্যাদি। বাস্তব জীবনের সঙ্গে সম্পর্কিত কিংবা কাল্পনিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে নাটক রচিত হতে পারে।

আরো পড়োসাহিত্য পড়ি লিখতে শিখি ৪র্থ পরিচ্ছেদ
আরো পড়োসাহিত্য পড়ি লিখতে শিখি ৫ম পরিচ্ছেদ

৩. এই অধ্যায়ে সাহিত্যের বিভিন্ন বিষয়ে তোমাদের লেখা সাহিত্যগুলো একত্রিত করে একটি দেয়ালপত্রিকা তৈরি করো।
নির্দেশনা :

সাহিত্যের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে সহপাঠীরা যেসব লেখা লিখেছ সেগুলো একত্র করো। এরপর বৈশিষ্ট্য অনুযায়ী লেখাগুলোকে ভাগ ও বাছাই করো। দেয়ালপত্রিকায় নমুনা অনুসরণ করে বাছাইকৃত লেখাগুলো নিয়ে কয়েকজন সহপাঠী মিলে একটি দেয়ালপত্রিকা প্রস্তুত করো।

CamScanner 06 20 2023 13.21 1

1 thought on “(বাংলা) ৬ষ্ঠ: সাহিত্য পড়ি লিখতে শিখি (৬ষ্ঠ পরিচ্ছেদ: সাহিত্যের নানা রূপ) – সমাধান”

Leave a Comment