Breaking News
বৈশাখী মেলা

অনুচ্ছেদ: বৈশাখী মেলা

বৈশাখী মেলা

বৈশাখী মেলা নববর্ষের সর্বজনীন অনুষ্ঠানগুলোর অন্যতম। নববর্ষ উপলক্ষ্যে বৈশাখ মাসের প্রথম দিনেই দেশের বিভিন্ন শহর ও গ্রামের বিভিন্ন স্থানে এ মেলা বসে। এ মেলার নির্দিষ্ট সময়সীমা নেই। এক দিন থেকে শুরু করে মাসব্যাপী এ মেলা চলতে থাকে। নতুন বছরে মানুষের আনন্দ-অনুভূতির প্রকাশ ঘটে বৈশাখী মেলার মাধ্যমে। এটা বাঙালি সংস্কৃতির ঐতিহ্য হিসেবে প্রচলিত। আবহমানকাল ধরে আমাদের দেশে বৈশাখী মেলা চলে আসছে। এ মেলা উপলক্ষ্যে বিভিন্ন উৎসব-অনুষ্ঠান ও প্রতিযোগিতামূলক খেলাধুলার আয়োজন করা হয়। তার মধ্যে বলী খেলা, ঘোড়দৌড়, নৌকাবাইচ উল্লেখযোগ্য। বৈশাখী মেলা সাধারণত খোলা আকাশের নিচে বসে। প্রতিবছর রমনার বটমূলে বসে এ মেলার প্রভাতি আসর। এছাড়া গ্রামের হাট-বাজার, নদী তীর, মন্দির প্রাঙ্গণে এ মেলা বসে। মানুষের মাঝে প্রাণচাঞ্চল্য লক্ষ করা যায়। নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য, নানা ধরনের কুটিরশিল্প, খেলনাসহ হরেক রকম পণ্যের সমাহার ঘটে এ মেলায়। এছাড়াও থাকে যাত্রা, পুতুলনাচ, নাগরদোলা, সার্কাসসহ বিনোদনমূলক বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন। বিভিন্ন ধরনের মিষ্টিজাতীয় খাবারও পাওয়া যায় মেলায়। নতুনকে বরণ করার উদ্দেশ্যেই এ মেলার আয়োজন করা হয়। কোনোরকম ধর্মীয় চেতনা এ মেলায় পরিলক্ষিত হয় না। তাই এটি একটি সর্বজনীন উৎসবে পরিণত হয়েছে। বৈশাখী মেলা জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সকলের মিলনমেলায় পরিণত হয়। এতে মানুষের প্রগতিশীল চেতনা জাগ্রত হয় এবং ঐতিহ্যকে লালন করে বাঁচার অনুপ্রেরণা লাভ করে। তাই সব দিক থেকে এ মেলার গুরুত্ব অপরিসীম।

পড়ুন → আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস
পড়ুন → বিশ্ববিদ্যালয়

About admin

Check Also

ক্ষুধার রাজ্যে পৃথিবী গদ্যময়

ভাব-সম্প্রসারণ: ক্ষুধার রাজ্যে পৃথিবী গদ্যময়;
পূর্ণিমা-চাঁদ যেন ঝলসানো রুটি।

ক্ষুধার রাজ্যে পৃথিবী গদ্যময়;পূর্ণিমা-চাঁদ যেন ঝলসানো রুটি। ভাব-সম্প্রসারণ: অগ্ন তৃপ্ত মানুষের মন প্রেম ও সৌন্দর্যের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *