Breaking News
পদার্থ ও শক্তি

(বিজ্ঞান) ৫ম: পদার্থ ও শক্তি অধ্যায়ের রচনামূলক প্রশ্নোত্তর

পদার্থ ও শক্তি হচ্ছে ৫ম শ্রেণীর প্রাথমিক বিজ্ঞান বই এর ৫ম অধ্যায়। পদার্থ ও শক্তি অধ্যায় থেকে বাছাইকৃত সেরা রচনামূলক প্রশ্নের উত্তর সম্পর্কে আলোচনা করা হলো-

পদার্থ ও শক্তি

প্রশ্ন-১. যখন পাতিলে ভাত রান্না করা হয় তখন তাপ কীভাবে সঞ্চালিত হয়?
উত্তর:
তরল ও বায়বীয় পদার্থের মধ্য দিয়ে তাপ পরিচলন পদ্ধতিতে সঞ্চালিত হয়। যখন পাতিলে ভাত রান্না করা হয় তখন পাতিলের নিচের অংশের পানি প্রথমে গরম হয়ে উপরে উঠে আসে। আর পাত্রের উপরের অংশের পানির তাপমাত্রা কম থাকায় তা নিচে নেমে যায়। যা আবার গরম হয়ে উপরের দিকে উঠে আসে। এভাবে তাপ রান্নার পাত্রের সর্বত্র ছড়িয়ে পড়ে। ফলে ভাত রান্না হয়।

প্রশ্ন-২. শক্তি কী? যখন টিভি চালানো হয় তখন শক্তির কী কী রূপান্তর ঘটে?
উত্তর:
কোনো কিছু করার সামর্থ্যই হলো শক্তি। যখন টিভি চালানো হয় তখন বিদ্যুৎ শক্তি পরিবর্তিত হয়ে আলোক, তাপ ও শব্দ শক্তিতে রূপান্তরিত হয়। টিভির রাগ কোনো বিদ্যুৎ উৎসের সাথে সংযুক্ত করলে এর ভেতর দিয়ে বিদ্যুৎ টিভিতে প্রবাহিত হয়। এই বিদ্যুৎ টিভির ভেতরের যন্ত্র দ্বারা আলোক ও শব্দ শক্তিতে রূপান্তরিত হয়। সেই সাথে কিছু তাপশক্তিও উৎপন্ন হয়।

প্রশ্ন-৩. শক্তির রূপান্তর কী? পরমাণু ও অণুর দুটি করে বৈশিষ্ট্য লেখো।
উত্তর:
শক্তির এক রূপ থেকে অন্যরূপে পরিবর্তিত হওয়াকে শক্তির রূপান্তর বলে।
পরমাণুর দুইটি বৈশিষ্ট্য:
i. খালি চোখে দেখা যায় না পদার্থের এমন সূক্ষ্ম কণা হলো পরমাণু।
ii. পরমাণুর স্বাধীন সত্তা নেই।
অণুর দুইটি বৈশিষ্ট্য:
i. দুই বা ততোধিক পরমাণু মিলে অণু গঠিত হয়।
ii. অণুর স্বাধীন সত্তা আছে।

প্রশ্ন-৪. শক্তির দুইটি রূপ লেখো। শক্তির অপচয় রোধে তোমার তিনটি করণীয় লেখো।
উত্তর:
শক্তির দুইটি রূপ হলো-
i. বিদ্যুৎ শক্তি; ii. তাপ শক্তি
শক্তির অপচয় রোধে আমার তিনটি করণীয় হলো-
রাতে পড়া শেষে বৈদ্যুতিক বাতি বন্ধ রাখা। দিনের বেলায় বাতি না জ্বালিয়ে পর্দা সরিয়ে দিনের আলোয় পড়ালেখা করা। গাড়ির বদলে যথাসম্ভব পায়ে হেঁটে বা সাইকেলে স্কুলে যাওয়া।

পড়ুন → পরিবেশ দূষণ অধ্যায়ের রচনামূলক প্রশ্নোত্তর
পড়ুন → জীবনের জন্য পানি অধ্যায়ের রচনামূলক প্রশ্নোত্তর

প্রশ্ন-৫. বিকিরণ কাকে বলে? রাসায়নিক শক্তি কোথায় সঞ্চিত থাকে? তাপ সঞ্চালনের বিকিরণ প্রক্রিয়াটি ব্যাখ্যা করো।
উত্তর:
যে প্রক্রিয়ায় তাপ শক্তি কোনো মাধ্যম ছাড়াই উৎস থেকে চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে তাকে বিকিরণ বলে।
খাবার, জ্বালানি তেল, কয়লা ইত্যাদিতে রাসায়নিক শক্তি সঞ্চিত থাকে।
যে প্রক্রিয়ায় তাপ শক্তি কোনো মাধ্যম ছাড়াই উৎস থেকে চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে তাকে বিকিরণ বলে। বিকিরণ প্রক্রিয়ায় তাপ কঠিন, তরল এবং বায়বীয় মাধ্যম ছাড়া সঞ্চালিত হয়। এ কারণে পৃথিবী থেকে সূর্য লক্ষ লক্ষ কিলোমিটার দূরে হলেও আমরা তাপ পাই।

প্রশ্ন-৬. শক্তির দুইটি উৎসের নাম লেখো। তুমি কীভাবে শক্তির অপচয় রোধ করবে তার চারটি উপায় লেখো।
উত্তর:
শক্তির দুইটি উৎসের নাম হলো-
i. সূর্য; ii. কয়লা।
আমি নিম্নলিখিত চারটি উপায়ে শক্তির অপচয় রোধ করতে পারি-
i. ব্যবহারের পর বৈদ্যুতিক বাতি ও যন্ত্রপাতিসমূহ বন্ধ রেখে।
ii. গাড়ির বদলে যথাসম্ভব পায়ে হেঁটে বা সাইকেল ব্যবহার করে।
iii. বাতি না জ্বালিয়ে পর্দা সরিয়ে দিনের আলো ব্যবহার করে।
iv. প্রয়োজনের অতিরিক্ত সময় ধরে ফ্রিজের দরজা খোলা না রেখে।

প্রশ্ন-৭. শক্তির রূপান্তর কী? শক্তি রূপান্তরের চারটি উদাহরণ লেখো।
উত্তর:
শক্তি এক রূপ থেকে অন্যরূপে পরিবর্তিত হতে পারে। শক্তির রূপের এই পরিবর্তনই হলো শক্তির রূপান্তর।
শক্তি রূপান্তরের চারটি উদাহরণ হলো-
i. যখন উদ্ভিদ খাদ্য তৈরি করে তখন সৌরশক্তি রাসায়নিক শক্তিতে রূপান্তরিত হয়।
i. প্রাণী যখন খাদ্য হিসেবে উদ্ভিদ গ্রহণ করে তখন রাসায়নিক শক্তি তাপ ও যান্ত্রিক শক্তিতে রূপান্তরিত হয়।
iii. সৌর প্যানেল সৌরশক্তিকে বিদ্যুৎ শক্তিতে রূপান্তরিত করে।
iv. যখন আমরা টেলিভিশন চালাই তখন বিদ্যুৎ শক্তি আলোক তাপ এবং শব্দ শক্তিতে রূপান্তরিত হয়।

প্রশ্ন-৮. টেলিভিশন দেখার সময় বিদ্যুৎ শক্তি কোন কোন শক্তিতে রূপান্তরিত হয়? বিদ্যুৎ শক্তির অপচয় রোধে তুমি কী করবে? এ সম্পর্কে চারটি বাক্য লেখো।
উত্তর:
টেলিভিশন দেখার সময় বিদ্যুৎ শক্তি আলোক, তাপ এবং শব্দ শক্তিতে রূপান্তরিত হয়।
বিদ্যুৎশক্তির অপচয় রোধের জন্য আমার করণীয় হলো-
i. ব্যবহারের পর বৈদ্যুতিক বাতি এবং যন্ত্রপাতিসমূহ বন্ধ রাখব।
ii. প্রয়োজনের অতিরিক্ত সময় ধরে ফ্রিজের দরজা খোলা রাখব না।
iii. বাড়িতে ছায়ার ব্যবস্থা করার জন্য গাছ-লাগাব যেন বৈদ্যুতিক পাখা কম চালাতে হয়।
iv. বাতি না জ্বালিয়ে পর্দা সরিয়ে দিনের আলোতে কাজ করব।

প্রশ্ন-৯. পানির একটি অণু কী কী দিয়ে গঠিত হয়? তরল পদার্থে তাপ কীভাবে সর্বত্র ছড়িয়ে পড়ে তিনটি বাক্যে লেখো।
উত্তর:
পানির একটি অণু দুইটি হাইড্রোজেন পরমাণু ও একটি অক্সিজেন পরমাণু মিলে গঠিত হয়।
যখন আমরা কোনো পানির পাত্রকে চুলায় গরম করি তখন এর নিচের অংশের পানি প্রথমে গরম হয়ে উপরে উঠে আসে। পাত্রের উপরের অংশের পানির তাপমাত্রা কম থাকায় তা নিচে নেমে আসে, যা আবার গরম হয়ে উপরের দিকে উঠে আসে। এভাবে তাপ পাত্রের পানির সর্বত্র ছড়িয়ে পড়ে।

প্রশ্ন-১০. তাপ সঞ্চালনের তিনটি প্রক্রিয়ার নাম লেখো। তরল অবস্থায় পানির অণুগুলোর অবস্থান সম্পর্কে দুইটি বাক্য লেখো।
উত্তর:
তাপ সঞ্চালনের তিনটি প্রক্রিয়ার নাম হলো-
i. পরিবহন প্রক্রিয়া; ii. পরিচলন প্রক্রিয়া; iii. বিকিরণ প্রক্রিয়া
তরল অবস্থায় পানির অণুগুলোর অবস্থান সম্পর্কে দুটি বাক্যে নিচে লেখা হলো-
তরল অবস্থায় পানিতে পানির অণুসমূহ যথেষ্ট কাছাকাছি থাকে। তাদের চলাচল করার জন্য অণুগুলোর মাঝে অল্প কিছু খালি জায়গা থাকে।

About admin

Check Also

জীবনের জন্য পানি

(বিজ্ঞান) ৫ম: জীবনের জন্য পানি অধ্যায়ের রচনামূলক প্রশ্নোত্তর

জীবনের জন্য পানি হচ্ছে ৫ম শ্রেণীর প্রাথমিক বিজ্ঞান বই এর ৩য় অধ্যায়। জীবনের জন্য পানি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *