Breaking News
Dowry System

Paragraph: Dowry System (Bangla meaning)

a. What is dowry
b. Who takes dowry?
e. What are the bad effects of dowry?
d. How does it pollute the society?
e. What is your opinion about dowry?

Dowry System (যৌতুক প্রথা)

Dowry system is money or property brought by a bride to her husband when they marry. It is a social problem. Previously it was a tradition among the Hindus. Because the Hindu women do not inherit property of their parents if they have brother. The Muslims also now follow this practice. The bridegrooms take dowry from their in-laws. But the Muslim girls inherit their parents’ property. It becomes a custom to take and give dowry. The married women are being tortured for dowry. Many women commit suicide for it. Some husbands divorce their wives without having dowry from their in-laws. It is really a bad practice. To make good relationship among the married couples, this bad practice should be stopped. I think it is necessary for our country. The government should punish the people who give and take dowry. It is a matter of hope that the Government has made a law against the dowry-hunting husbands. It is a punishable crime to give and take dowry. But the people are very clever. They take dowry in many indirect ways. Thus they evade the law. Social awareness is very necessary for dowry. We have to educate our people and make them understand the bad effects of dowry. The unmarried men have to change their mentality in this regard. To ensure happy conjugal life, we have to say ‘no’ to dowry.

Paragraph : Gender Discrimination or Disparity
Paragraph : Family or My Family

বঙ্গানুবাদ : যৌতুক প্রথা হলো টাকা অথবা সম্পত্তি যা কনে তার বরের জন্য তার বিয়ের সময় নিয়ে যায়। এটা একটি সামাজিক সমস্যা। পূর্বে এটা হিন্দুদের একটা ঐতিহ্য ছিল। কারণ হিন্দু মহিলারা তাদের পৈতৃক সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত থাকতো যদি তাদের ভাই থাকতো। মুসলমানেরাও এখন এ পন্থা অবলম্বন করেছে। নববিবাহিত পুরুষরা কন্যা পক্ষ থেকে যৌতুক নেয়। কিন্তু মুসলমান মেয়েরা পৈতৃকসূত্রে সম্পত্তি পায়। যৌতুক দেয়া ও নেয়া একটা প্রথা হয়ে দাঁড়িয়েছে। বিবাহিত মহিলারা যৌতুকের জন্য নির্যাতিত হয়। এজন্য অনেক মহিলারা আত্মহনন করে। অনেক স্বামী তার স্ত্রীকে তালাক দেয় তার পিতৃ প্রদত্ত যৌতুক না আনবার কারণে। এটা প্রকৃতপক্ষে একটি খারাপ রেওয়াজ। বিবাহিত দম্পতির মধ্যে ভালো সম্পর্ক গড়ার ক্ষেত্রে যৌতুকের তার খারাপ জিনিস পরিহার করা উচিত। আমার মতে আমাদের দেশের জন্য ইহা আবশ্যক। যৌতুক আদান-প্রদানকারীদের সরকারের শাস্তি দেয়া উচিত। এটা আশার বাণী যে, সরকার আইন প্রণয়ন করেছেন যেসব স্বামী যৌতুক লোভী তাদের জন্য। যৌতুক দেয়া ও নেয়া এটা শাস্তিযোগ্য অপরাধ। কিন্তু মানুষজন খুব চালাক। তারা বিভিন্ন পরোক্ষ উপায়ে যৌতুক নেয়। এরপরও তারা এ আইন এড়িয়ে যায়। সামাজিক সচেতনতা যৌতুকের জন্য খুবই দরকারি। আমাদের জনগনকে শিক্ষিত করতে হবে এবং যৌতুকের কুফল সম্পর্কে বুঝাতে হবে। অবিবাহিত পুরুষদের মনমানসিকতা পরিবর্তন করতে হবে। দাম্পত্য জীবন সুখী করার লক্ষ্যে আমাদের বলতে হবে, ‘আর নয় যৌতুক’।

About admin

Check Also

My childhood

Paragraph: My Childhood (Bangla meaning)

a. What was your childhood like?b. Where did you pass your childhood and how?c. Can …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *